RSS Feed

short-হাজ্জ এর প্রস্তুতি – ১ to ৪

http://www.hajjpreparation.com

হাজ্জ এর প্রস্তুতি – ১

অনেকদিন ধরেই এই বিষয়ে কিছু লেখার জন্য আমাকে অনেকেই বলে আসছেন। কিন্তু কি লিখব কিভাবে লিখব বুঝে উঠতে পারছিলাম না। এখন ভাবছি অল্প অল্প যা মাথায় আসে তাই লিখে রাখব। পরে সময় সুযোগ হলে সংকলন করা যাবে। আজকে কয়েকটা গুরুত্বপূর্ণ টিপস দেব, ইন-শা-আল্লাহ .

১) মক্কা মদিনায় বাতাসে আদ্রতা কম, তাই ত্বক ফাটে খুব বেশি। এই ফাটা ত্বকে প্রচুর হাটতে হবে, অতএব, পা ফেটে চৌচির হয়ে যাবে। যদি আরামে আপনার হাজ্জ সম্পাদন করতে চান তাহলে নিজের সাথে একটি ময়েশ্চারাইজিং ক্রিম নিয়ে যাবেন (ভেসলিন টোটাল ময়েশ্চার একটা ভালো অপশন) এবং প্রতিরাতে শোবার আগে পা এর তালু ধুয়ে মুছে ক্রিম ব্যাবহার করবেন। ইন-শা-আল্লাহ পায়ের তালুফাটা যন্ত্রণা থেকে মুক্ত থাকবেন।

২) আমাদের যাদের প্রতিদিন কমপক্ষে ৫ থেকে ৮ কিলো রাস্তা হাটার অভ্যেস নেই, তারা অবশ্যই সাথে করে পেট্রোলিয়াম জেলী নিয়ে যাবেন। সুগন্ধিমুক্ত ভেসলিন নিতে পারেন, কারণ ইহরাম অবস্থায় কোনো সুগন্ধি ব্যাবহার করা যায় না। দুই রানের কুচকিতে পর্যাপ্ত পরিমান ভেসলিন মাখিয়ে নেবেন লম্বা রাস্তা হাটার আগে। হজ এর মূল ৫ দিন আপনাকে ৩৫ থেকে ৫০ কিলোমিটার রাস্তা হাটতে হতে পারে। এই কাজটুকু না করলে হাটতে হাটতে চামড়া ছিলে যাবার সম্ভাবনা প্রবল। যার ফলে আপনি মিনা থেকে জামারায় যাওয়া, ফরজ তাওয়াফ করা, সায়ী করা, মক্কা থেকে মিনায় ফেরা,  ইত্যাদি কাজগুলো সুষ্ঠ ভাবে শেষ করতে পারবেন না।

৩) অযথা গুড় মুড়ি নেবেন না। এগুলো খাওয়া হয় না। আলহামদুলিল্লাহ এখন হজ এর সময়টা চারিদিকে এত বেশি খাবারের ছড়াছড়ি থাকে যে, ওই গুড়মুড়ি শেষ পর্যন্ত আর কারোই খাওয়া হয় না। তবে আপনার যদি এজেন্সির খাবার সরবরাহ না থাকে, এবং যদি কেনা খাবারে অরুচি থাকে, তাহলে শুধু হজ এর ৫ দিন এর জন্য সামান্য শুকনা খাবার সাথে নিতে পারেন। বাকি পুরো সময় ইন-শা-আল্লাহ গুড় মুড়ির কোনো প্রয়োজন হবে না।

৪) ওখানে আমদের মত ধুলা কাঁদা নেই। তাই কাপড় সহজে ময়লা হয় না। আদ্রতা নেই বলে ঘামও খুব কম হয়। আর প্রচন্ড রোদ থাকে বলে ১ ঘন্টায় কাপড় শুকিয়ে যায়। নিশ্চই বুঝে ফেলেছেন কি বলতে চাইছি। জি, বেশি কাপড় এর বোঝা নেবেন না। শুধু কাপড় শুকোবার জন্য কয়েকটা ক্লিপ আর একটা নাইলনের রশি নেবেন। হোটেল বা বাসা, যেখানেই আপনার এজেন্সি আপনাকে রাখুক, ছাদে কাপড় শুকোবার সুযোগ পাবেন ইন-শা-আল্লাহ। কয়েক সেট কাপড় ধুয়ে ধুয়ে ব্যাবহার করবেন।

৫) মিনা কিংবা আরাফায় যাবার সময় যত হালকা থাকা যায় তত ভালো। বলে রাখি, টোটাল বোঝা ৩ কেজির বেশি না হওয়াই ভালো। কারণ এটা কাঁধে নিয়েই আপনাকে ৩৫-৫০ কিলোমিটার রাস্তা হাটতে হতে পারে।

৬) আরাফায় বিদ্যুত নেই। মিনায় আছে, তবে শত শত মানুষের সাথে যুদ্ধ করে আপনার মোবাইল চার্জ দেবার সুযোগ নাও পেতে পারেন। সুতরাং, এমন মোবাইল সেট সাথে নেবেন যেটা এক সপ্তাহ চার্জ না দিলেও আরামসে চলে, যেমন সিম্ফনি 🙂
আজ এ পর্যন্তই থাকুক। পরে আবার লিখব ইন-শা-আল্লাহ।
————————————————————

হাজ্জ এর প্রস্তুতি: ২ – হাজ্জ কিভাবে করবেন?

অনেক বই আছে, অনেক জটিল ভাষায় অনেক বর্ণনা আছে। কিন্তু খুব অল্প কথায় জানতে চাইলে পুরো বিষয়টা কেমন যেন ঘোলাটে হয়ে যায়। তাই এবার চেষ্টা করব খুব সংক্ষেপে হজ এর পদ্ধতি বর্ণনা করতে।

১) প্রথমে জেনে নেই কয়েকটি জায়গার নাম। জেদ্দা, মক্কা, মিনা, আরাফাহ, মুজদালিফা, জামারাহ, এবং মদীনা।
২) এবার জেনে নেই কয়েকটি আমল এর নাম। ইহরাম, ওমরাহ, তাওয়াফ, সায়ী, উকুফ, রমি, হাদী।
৩) মক্কায়, মাসজিদুল হারামের ভিতরে অবস্থিত কয়েকটি জায়গার নাম ও জেনে নেওয়া প্রয়োজন। কাবা, জমজম, মাকামে ইব্রাহিম, হাজরে আসওয়াদ, রুকনে ইয়ামেনি, হাতিমে কাবা, সাফা, মারওয়া।
এবার আসুন জেনে নেই, কবে কবে কিভাবে কি হবে।
৮ জিলহজ্জ: ফজর এর সালাত এর পর মক্কা থেকে নতুন করে ইহরাম করে চলে যাবেন মিনা। ওখানে সবার জন্য এসি তাবুর ব্যাবস্থা আছে। আপনার এজেন্সি আপনাকে তাঁবু পর্যন্ত নিয়ে যাবে। এখানে আজ আর কোনো কাজ নেই। শুধু সালাত আদায় করুন ৫ ওয়াক্ত। ইবাদতে মশগুল থাকুন। গল্পগুজবে অংশ নেবেন না। বিশ্রাম করুন।

৯ জিলহজ্জ: মিনা থেকে ফজর সালাত আদায় করে চলে আসুন আরাফাতের ময়দানে। এখানে তাঁবু থাকবে আপনার এজেন্সির। তবে এসি তো দুরের কথা, মোবাইল চার্জ দেবারও কোনো ব্যাবস্থা থাকবে না। মসজিদে নামিরা থেকে খুতবা হবে যোহর এর সালাতের আগে। সাথে FM রেডিও থাকলে খুতবা শুনুন। না থাকলে বিশ্রাম করুন। যোহর এর আজান হলে যোহর এবং আসর এক সাথে ২ রাকাত ২ রাকাত করে আদায় করে নিন। মনে রাখবেন, আরাফাতে আসর এর কোনো আজান হবে না। এবং, যোহর আসর এক আজানে, ২ একমতে, ২ রাকাত ২ রাকাত করে আদায় করতে হবে। এরপর শুরু হলো উকুফে আরাফাত। সুর্য পুরোপুরি ডুবে  যাওয়া পর্যন্ত দোআ করতে থাকুন। আল্লাহর কাছে চাইতে থাকুন। যা ইচ্ছা তাই চান। নিজের জন্য, সবার জন্য ইচ্ছেমত চাইতে থাকুন। সুর্য পুরোপুরি ডুবে গেলে মুজদালিফার উদ্দেশ্যে রওনা হয়ে যান। ভুলেও মাগরিব আরাফাতে পরবেন না। মুজদালিফায় পৌছে যত রাত ই হোক, মাগরিব (৩ রাকাত) ও এশা (২ রাকাত) পড়ুন। এটাই নিয়ম। সালাত আদায় হয়ে গেলে ঘুমিয়ে পড়ুন।
১০ জিলহজ্জ : ফজর সালাত আদায় করে মুজাদালিফা থেকে চলে আসুন জামারায়। শুধু “জামারাতুল আকবার” অর্থাৎ বড় জামারায় পাথর নিক্ষেপ করে সোজা মক্কায় চলে আসুন। হাদী জবাই করুন। কিংবা কাউকে দায়িত্ব দেয়া থাকলে খবর নিন জবাই হয়েছে কিনা। জবাই হয়ে গেলে মাথা কামিয়ে ফেলুন। গোসল করে নতুন জামা পড়ে চলে আসুন মাসজিদুল হারামে। ফরজ তাওয়াফ করুন। তাওয়াফ শেষে মাকামে ইব্রাহিমের পিছনে যেকোনো জায়াগায় ২ রাকাত সালাত আদায় করুন। প্রথম রাকাতে সুরা কাফিরুন, পরের রাকাতে ইখলাস। এরপর পেটপুরে জমজম পান করুন। কিছুটা মাথায় দিন। (ভুলেও ঠান্ডা পানি ব্যাবহার করবেন না।  “Not Cold” লেখা কন্টেইনার থেকে পানি নিন।) এবার সাফা মারওয়া সায়ী করুন। ব্যাস আজকের কাজ শেষ। রাত ১২টা বাজার আগেই মিনায় তাঁবুতে ফিরে যান।
১১ ও ১২ জিলহজ্জ: মিনা থেকে যোহর এর পর জামারায় যান। তিন টি জামারাতেই একে একে পাথর নিক্ষেপ করুন। (পাথর এর সাইজ হতে হবে বুটের দানা বা সিম এর বিচির সমান, এর চেয়ে বড় পাথর নেবেন না।) ছোট, ও মেজ জামারায় পাথর নিক্ষেপ হলে কিবলা মুখী হয়ে আল্লাহর কাছে ফরিয়াদ করুন। মনে রাখবেন, বড় জামারায় পাথর নিক্ষেপ এর পর কোনো দোয়া নেই। বড় জামারায়, মানে শেষটিতে কঙ্কর নিক্ষেপ হয়ে গেলে ১১ তারিখ চলে আসুন মিনায়, তাঁবুতে, আর ১২ তারিখ চলে যান মক্কায়। ব্যাস হজ শেষ। অবশ্য মাগরিব এর আগে যদি মিনার সীমানা ত্যাগ করতে না পারেন তাহলে কিন্তু ১২ তারিখ রাতেও আপনাকে মিনার তাঁবুতে থেকে ১৩ তারিখ যোহর এর পরে আবার পাথর নিক্ষেপ করে মিনা ত্যাগ করতে হবে।
এই পর্বে এই পর্যন্তই। আরও জানতে হলে এখানে মন্তব্যের ঘরে প্রশ্ন করুন। জবাব দেবার চেষ্টা করব ইন-শা-আল্লাহ। http://ashique.info/hajjprep-2/
========================================================

হাজ্জ এর প্রস্তুতি: ৩ – কে হাজ্জ করবেন?

নারী পুরুষ যে কেউ হাজ্জ করতে পারেন। তবে হজ ফরজ হবার কয়েকটি শর্ত রয়েছে। যাদের ওপর হাজ্জ ফরজ হয়নি, তারা হাজ্জ এর জন্য বেশি তাড়াহুড়া না করাই ভালো।

 

তাহলে আসুন জেনে নেই হাজ্জ ফরজ হবার শর্ত কি কি

১। মুসলিম হতে হবে
২। বালেগ হতে হবে
৩। হাজ্জ সম্পাদন করার মত এবং হাজ্জ জন্য যতদিন পরিবার থেকে দুরে থাকবেন, ততদিন তাদের সংসার চলার মত যথেষ্ট টাকা থাকতে হবে।
৪। শারীরিক ভাবে হাজ্জ সম্পাদন করার মত সুস্থ থাকতে হবে
৫। মানসিক সুস্থতা থাকতে হবে।
৬। শুধু মহিলাদের জন্য: সাথে যাবার মত একজন মাহরাম পুরুষ থাকতে হবে।
৬ নম্বর শর্তে অনেকেই প্রশ্ন করে থাকেন এমন “আমার এমন কোনো মাহরাম পুরুষ নেই যার ওপর হাজ্জ ফরজ হয়েছে, বা যার হাজ্জ এ যাবার মত অর্থ আছে। আমি কিভাবে হাজ্জ এ যাব?” এক্ষেত্রে যদি এমন হয় যে, ওই মাহরাম পুরুষকে সাথে নেবার মত যথেষ্ট টাকা আপনার কাছে আছে, তাহলে আপনি নিজ খরচে তাঁকে নিয়ে যাবেন। আর যদি এমন হয় যে আপনার কাছে এমন টাকা আছে যা দিয়ে আপনার একার পক্ষে যাওয়া সম্ভব অথচ এমন কোনো মাহরাম নেই যিনি নিজের টাকায় হাজ্জে যাচ্ছেন, অথবা আপনার কাছেও এমন টাকা নেই যে আপনি কাউকে স্পন্সর করে নিয়ে যেতে পারছেন, তাহলে আপনার ক্ষেত্রে ৩ এবং ৬ নম্বর শর্ত পূরণ না হওয়ায় হাজ্জ ফরজ হয় নি।
মন্তব্যের ঘরে প্রশ্ন করতে পারেন। সাধ্যমত জবাব দেবার চেষ্টা করব ইন-শা-আল্লাহ।
======================================================

হজ্জ এর প্রস্তুতি ৪: যাত্রা শুরুর পূর্বে

এই পর্বে আমি বলার চেষ্টা করব হজ্জ যাত্রা শুরুর পূর্বে আপনাকে কি কি করতে হবে।

১। প্রথম কাজ হলো একটি ভালো এজেন্সি খুঁজে বের করা। কিভাবে বুঝবেন কোন এজেন্সি ভালো?
২। টাকা, পাসপোর্ট, এবং ম্যানিনযাইটিসের টিকার সনদ জোগাড় করুন। কিভাবে করবেন?
৩। প্রয়োজনীয় কেনাকাটা সেরে নিন। কি কি কিনতে হবে?
৪। লাগেজ গুছিয়ে ফেলুন। কি কি সাথে নেবেন?
৫। প্রয়োজনীয় দোআ এবং সুরা সুরা গুলো শিখে নিন। কি কি শিখতে হবে?
৬। ইহরাম এর পোশাক পড়া শিখে নিন। কিভাবে পড়তে হয়?
৭। অর্থনৈতিক লেনদেন শেষ করে নিন। কি কি লেনদেন এর মধ্যে অন্তর্ভুক্ত?
পরবর্তী পর্ব গুলোতে চেষ্টা করব উপরের প্রশ্নের ধারাবাহিক জবাব দিতে। ইন-শা-আল্লাহ।
=======================================================
Advertisements

About sogoodislam

The concept of Islam is only-La ila ha illal la hu Muhamadur Rasulullah.

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s

%d bloggers like this: